শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৩১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
অসহায় মানুষের পাশে বিশিষ্ট সমাজসেবক হুমায়ুন কবীর কুষ্টিয়ায় ব্যবসায়ীদের সাথে জেলা প্রশাসনের মতবিনিময় সভা মিরপুরে জিকে ক্যানেলে ভাসমান লাশ উদ্ধার। শৈলকুপায় জমি নিয়ে সংঘর্ষে আহত-৮, মসজিদের পিলার ভাংচুর ভাটার মাটি রাস্তায়, জনদুর্ভোগ চরমে! তথ্য সংগ্রহকালীন সাংবাদিক লাঞ্ছিত করোনাকালে প্রণোদনার কোটি কোটি টাকা ঝিনাইদহের কারা পেলো? দৌলতপরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৬ জনকে জরিমানা দৌলতপুরে আল- সালেহ লাইফ লাইন বাংলাদেশ লিমিটেডের উদ্দ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ দর্শনা থানা পুলিশের মাদক অভিযানে এক কেজি গাঁজা সহ হারুন আটক। আল সালেহ লাইফ লাইনের ভালোবাসার উপহার গরিব দুস্হ অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্যসহায়তা
ঘোষনা :
আন্দোলনের ডাক ডটকমে আপনাকে স্বাগতম , সর্বশেষ সংবাদ জানতে  আন্দোলনের ডাক ডটকমের সাথে থাকুন । আন্দোলনের ডাক ডটকমের জন্য  সকল জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহী প্রার্থীগণ জীবন বৃত্তান্ত, পাসপোর্ট সাইজের ১কপি ছবি ও শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রসহ ই-মেইল পাঠাতে পারেন। শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ যে কোন বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক পাস এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে অধ্যয়নরত ছাত্র/ছাত্রীগণও আবেদন করতে পারবেন।   আবেদন প্রেরণের প্রক্রিয়াঃ  ই-মেইল: , প্রয়োজনে মোবাইলঃ  

মহান মুক্তিযুদ্ধের ৮ নং সেক্টর কমান্ডার আবু ওসমান চৌধুরী আর নেই

অফিস ডেস্কঃ / ৭১ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৩১ পূর্বাহ্ন

মহান মুক্তিযুদ্ধের ৮ নং সেক্টর কমান্ডার ও চাঁদপুর জেলা পরিষদ এর সাবেক প্রশাসক কর্নেল (অব.) আবু ওসমান চৌধুরী (৮৫) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি ২ কন্যা সন্তানসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান।

মরহুমের মেয়ের জামাতা খোরশেদ আলম মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, মরহুমের নামাজে জানাযা এবং দাফনের বিষয়ে এখবর পাওয়া পর্যন্ত পারিবারিকভাবে কোন সিদ্ধান্ত হয়নি।

আবু ওসমান চৌধুরী চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের মদনের গাঁও গ্রামের চৌধুরী বাড়ীর বাসিন্দা। স্বপরিবারে তিনি রাজধানীর ধানমন্ডী বাড়ীতে বসবাস করতেন।

মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে আবু ওসমান চৌধুরী পাকিস্তান সেনাবাহিনীর একজন মেজর পদে কুষ্টিয়ায় কর্মরত ছিলেন। অপারেশন সার্চলাইট-এর সংবাদ পেয়ে ২৬ মার্চ সকালে বেলা ১১টায় তিনি চুয়াডাঙার ঘাঁটিতে পৌঁছে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেন এবং মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেন।

এর আগে ১৯৭১ সালের ৬ মার্চ আবু ওসমান চৌধুরী পদ্মা মেঘনার ওপারে কুষ্টিয়া থেকে বরিশাল জেলা পর্যন্ত বিস্তীর্ণ এলাকাকে দক্ষিণ-পশ্চিম রণাঙ্গণ নামকরণ করে সে রণাঙ্গণের অধিনায়কত্ব গ্রহণ করেন। পরে ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল বাংলাদেশ সরকার তাকে দক্ষিণ পশ্চিমাংসের আঞ্চলিক কমান্ডার হিসেবে নিযুক্ত করেন।

মে মাসের শেষার্ধে প্রধান সেনাপতি এমএজি ওসমানী দক্ষিণ-পশ্চিম রণাঙ্গনকে দুই ভাগ করে ৮নং ও ৯নং সেক্টরদ্বয় গঠন করেন এবং ৮ নং সেক্টরের দায়িত্বে আবু ওসমানকে নিয়োগ করা হয়। প্রাথমিকভাবে সে সময় ওই সেক্টরের অপারেশন এলাকা ছিল কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, ফরিদপুর ও পটুয়াখালী জেলা। মে মাসের শেষে অপারেশন এলাকা সংকুচিত করে কুষ্টিয়া ও যশোর, খুলনা জেলা সদর, সাতক্ষীরা মহকুমা এবং ফরিদপুরের উত্তরাংশ নিয়ে এই এলাকা পুনর্গঠন করা হয়। এই সেক্টরের প্রধান ছিলেন আবু ওসমান চৌধুরী এবং পরে মেজর এম এ মঞ্জুর। তার প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ‘এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম (১৯৭১)’ মুক্তিযুদ্ধে অনন্য অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার আবু ওসমান চৌধুরীকে স্বাধীনতা পদকে ভূষিত করেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

Archives

এক ক্লিকে বিভাগের খবর