শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৫:০৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
করোণা মোকাবেলায় সচেতন করছে জাসদ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী প্লাবন। কুমারখালীতে কঠোর বিধিনিষেধ বাড়িয়েছে করোনা, নাগরিক কমিটির উদ্বেগ আক্রান্ত-৮৭ কুমারখালীতে একাধিক মামলার আসামীকে গায়েবী মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ পাটগ্রামে অসহায় আব্বাস আলীর চোখের চিকিৎসা খরচ যোগাতে পাশে দাঁড়ালেন মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটি পাটগ্রামে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে প্রতিবেশী শ্বশুর- বউমা উধাও! মিরপুর পৌর এলাকা ৭ দিনের সর্বাত্মক লকডাউন খোকসায় যুদ্ধকালীন সময়ের পরিত্যক্ত গ্রেনেড উদ্ধার হয়েছে। সাধারণ জনগণকে বোকা বানিয়ে অর্থনৈতীক শোষণ করা হচ্ছে না তোঃপ্লাবন। মেহেরপুরে High flow oxygen canal উপহার দেওয়াই প্লাবনের শুভেচ্ছা পরিবর্তনের মেহেরপুরের এ্যাডমিন সাইদুর রহমান এর সাথে সহমত পোষণ করলেনঃপ্লাবন।
ঘোষনা :
আন্দোলনের ডাক ডটকমে আপনাকে স্বাগতম , সর্বশেষ সংবাদ জানতে  আন্দোলনের ডাক ডটকমের সাথে থাকুন । আন্দোলনের ডাক ডটকমের জন্য  সকল জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহী প্রার্থীগণ জীবন বৃত্তান্ত, পাসপোর্ট সাইজের ১কপি ছবি ও শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রসহ ই-মেইল পাঠাতে পারেন। শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ যে কোন বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক পাস এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে অধ্যয়নরত ছাত্র/ছাত্রীগণও আবেদন করতে পারবেন।   আবেদন প্রেরণের প্রক্রিয়াঃ  ই-মেইল: , প্রয়োজনে মোবাইলঃ  




অর্থাভাবে জীবন প্রদীপ নিভে যেতে বসেছে মেধাবী শিক্ষার্থী আবুল বাশার’র

এইচ,এম ইমরান : / ১৫১ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৫:০৩ অপরাহ্ন




অর্থাভাবে জীবন প্রদীপ নিভে যেতে বসেছে মেধাবী শিক্ষার্থী আবুল বাশার’র

এইচ এম ইমরান :
অর্থের অভাবে জীবন প্রদীপ নিভে যেতে বসেছে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কালিকাপুর গ্রামের মেধাবী শিক্ষার্থী আবুল বাশারের। গত ২০ বছর ব্যাংকার পিতা চিকিৎসা খরচ বহণ করলেও ১ বছর আগে পিতা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার পর এখন টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না তিনি। ব্যাংক থেকে গৃহনির্মানের ঋণ নেওয়ার কারণে পিতা মারা যাওয়ার পর এখন আর বেতন বা পেনশন পাচ্ছেন না। সংসার চলছে অর্ধহারে-অনাহারে। তার উপর চিকিৎসা খরচ মেটাতে এখন মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে আবুল বাশার ও তার পরিবার।
জানা যায়, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কালিকাপুর গ্রামের বদর আলী মন্ডলের ছেলে আবুল বাশার। ১০ বছর বয়সে এনকোলাইজিং স্পন্ডিয়াস নামের একটি দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হন তিনি। প্রথমে হাটুতে ফুলে যেত, জ্বর আসতো। হাটুতে পানি জমতে জমতে কোমরের জয়েন্টে আটকে যায়। কোনমত হাটা চলা করতে পারেন। এভাবেই চলছে ২০ বছর। এতদিন ব্যাংকার পিতা তার বেতন ও ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে চিকিৎসা করিয়ে আসছিলেন। গিয়েছেন ঢাকা, ভারতসহ বিভিন্ন স্থানে। বর্তমানে টাকার অভাবে আবারো ভারতে যেতে পারছেন না। চিকিৎসরা পরামর্শ দিয়েছেন ভারতের ভেলরে যেতে। কিন্তু টাকার অভাবে তিনি যেতে পারছেন না।
বাশারের চাচাতো ভাই ফরিদুল ইসলাম বলেন, আবুল বাশার একজন মেধাবী ছাত্র। তিনি বর্তমানে চুয়াডাঙ্গার ক্যাপিটাল ইউনির্ভাসিটি অব বাংলাদেশের এলএলবি ৪র্থ বর্ষে অধ্যায়নরত। তার পিতা মারা যাওয়ার পর টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না। আমরা যতদুর পেরেছি সাহায্য করেছি। এখন তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন আনুমানিক ৫ লাখ টাকা। এজন্য সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। বাশারের চিকিৎসার জন্য সহযোগিতা করতে চাইলে এই নম্বরে যোগাযোগ করা যেতে পারে-০১৭৭৩-২৪৫২৫৬ (বিকাশ)। রুপালী ব্যাংক ঝিনাইদহ কর্পোটের শাখার হিসাব নং-৩০৮৭০১০০১২৮২৬।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....




Archives

এক ক্লিকে বিভাগের খবর