শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
অসহায় মানুষের পাশে বিশিষ্ট সমাজসেবক হুমায়ুন কবীর কুষ্টিয়ায় ব্যবসায়ীদের সাথে জেলা প্রশাসনের মতবিনিময় সভা মিরপুরে জিকে ক্যানেলে ভাসমান লাশ উদ্ধার। শৈলকুপায় জমি নিয়ে সংঘর্ষে আহত-৮, মসজিদের পিলার ভাংচুর ভাটার মাটি রাস্তায়, জনদুর্ভোগ চরমে! তথ্য সংগ্রহকালীন সাংবাদিক লাঞ্ছিত করোনাকালে প্রণোদনার কোটি কোটি টাকা ঝিনাইদহের কারা পেলো? দৌলতপরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৬ জনকে জরিমানা দৌলতপুরে আল- সালেহ লাইফ লাইন বাংলাদেশ লিমিটেডের উদ্দ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ দর্শনা থানা পুলিশের মাদক অভিযানে এক কেজি গাঁজা সহ হারুন আটক। আল সালেহ লাইফ লাইনের ভালোবাসার উপহার গরিব দুস্হ অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্যসহায়তা
ঘোষনা :
আন্দোলনের ডাক ডটকমে আপনাকে স্বাগতম , সর্বশেষ সংবাদ জানতে  আন্দোলনের ডাক ডটকমের সাথে থাকুন । আন্দোলনের ডাক ডটকমের জন্য  সকল জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহী প্রার্থীগণ জীবন বৃত্তান্ত, পাসপোর্ট সাইজের ১কপি ছবি ও শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রসহ ই-মেইল পাঠাতে পারেন। শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ যে কোন বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক পাস এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে অধ্যয়নরত ছাত্র/ছাত্রীগণও আবেদন করতে পারবেন।   আবেদন প্রেরণের প্রক্রিয়াঃ  ই-মেইল: , প্রয়োজনে মোবাইলঃ  

ভেড়ামারায় নকল জুসের কারখানা : এক লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড।

কুষ্টিয়া অফিসঃ / ৯৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৪৭ পূর্বাহ্ন

ভেড়ামারায় নকল জুসের কারখানা :
এক লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড।

কু‌ষ্টিয়ার ভেড়ামারার বাহিরচর ইউনিয়নের ১৬ দাগ গ্রামে বাড়ির মধ্যে গড়ে তুলেছিল নকল জুস তৈরীর ছোট খাটো কারখানা। তৈরি হতো নকল অস্বাস্থ্যকর জুস। এতদিন নিরবে ব্যবসা করে গেলেও ঘুণাক্ষরেও কউ টের পায়নি। গতকাল মঙ্গলবার সকালে গোপন সংবাদ পেয়ে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ
তৈরি নকল জুসের সন্ধান পাওয়া যায়।
ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সো‌হেল মারুফ ও বিএসটিআই এর পরিদর্শক ও থানার পুলিশ ফোর্স কে সাথে নি‌য়ে এ অ‌ভিযান পরিচালনা করেন।

কারখানার সামনে গেলে এসময় ঠিকানা সঠিক নয় বলে দাবি করে নকল জুস ও বাড়ির মালিক। এসময় ঘরের তালা খুলে প্রবেশ করা হয়। জুসের বোতলের গায়ে
তৃষ্না নাম লেখা থাকলেও ফ্যাক্টরীর ঠিকানা লেখা নেই। বিএসটিআইয়ের ছাপানো নকল সিল। অনুমোদন হীন এ কারখানা গোপনে পন্য উৎপাদন করে বাজারে সরবরাহ করতো।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল মারুফ জানান,
ফিল্টার মেশিনের পানির সাথে ঘনচিনি, কাপড়ের ক্ষতিকর রঙ মিশিয়ে জুস তৈরী হচ্ছে।বিএসটিআইয়ের সিল তাদের হাতে তৈরি। ঘনচিনি আর কাপড়ের রঙ কিডনির ক্ষতি করে ও ক্যান্সার রোগে সরাসরি ভূমিকা রাখে তাই এটা খাবারে
নিষিদ্ধ ,তবুও ব্যবহার করছে তারা। বিএসটিআইয়ের নকল সিল। সকল পণ্য জব্দ করে ধ্বংস করা হয়েছে। মালিক জগলু সরদারকে পাওয়া যায়নি ঘটনাস্থলে, আসার কথা বলে সে পালিয়ে যায়। তার দুই ছেলেকে ফ্যাক্টরি থেকে আটক করা হয়। বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড ও টেস্টিং ইনস্টিটিউশন আইন ২০১৮ মোতাবেক মালিক জগলু সরদারকে কে এক লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড করা হয়েছে। অর্থদণ্ড আদায় সাপেক্ষে তার দুই ছেলেকে ছেড়ে দেয়া হয়।
ফ্যাক্টরি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

Archives

এক ক্লিকে বিভাগের খবর