মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
আল সালেহ লাইফ লাইনের ভালোবাসার উপহার গরিব দুস্হ অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্যসহায়তা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জননেতা হানিফ এমপির সুস্বাস্থ্যতা কামনা ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠান বাঁশখালী বিদ্যুৎ কেন্দ্রের শ্রমিক হত্যার প্রতিবাদে ক্ষোভ প্রকাশ ও শাস্তির দাবী জানান কুষ্টিয়া শাখার জাতীয় গণফ্রন্ট ভেড়ামারায় পদ্মা নদীতে গোসল করতে নেমে স্কুলছাত্র ডুবে গিয়ে নিহত। ভেড়ামারা উপজেলা প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে ৩শত শ্রমিক ধান কাটতে নাটোরে ভেড়ামারায় ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে চাঁদা দাবীর অভিযোগে যুবলীগ নেতা শরিফুজ্জামান সুমন গ্রেফতার; মামলা দায়ের। কুমারখালীতে হাত পা বাঁধা কৃষকের লাশ উদ্ধার কুমারখালীতে ভিক্ষুককে পিটিয়ে হত্যা, থানায় মামলা দৌলতপুর সীমান্তে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক দৌলতপুরে লকডাউনের তৃতীয় দিন রাস্তার মোড়ে মোড়ে কঠোর অবস্থানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী
ঘোষনা :
আন্দোলনের ডাক ডটকমে আপনাকে স্বাগতম , সর্বশেষ সংবাদ জানতে  আন্দোলনের ডাক ডটকমের সাথে থাকুন । আন্দোলনের ডাক ডটকমের জন্য  সকল জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহী প্রার্থীগণ জীবন বৃত্তান্ত, পাসপোর্ট সাইজের ১কপি ছবি ও শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রসহ ই-মেইল পাঠাতে পারেন। শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ যে কোন বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক পাস এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে অধ্যয়নরত ছাত্র/ছাত্রীগণও আবেদন করতে পারবেন।   আবেদন প্রেরণের প্রক্রিয়াঃ  ই-মেইল: , প্রয়োজনে মোবাইলঃ  

দৌলতপুরের দুর্গম চরের পৌছে গেল বিদ্যুতের আলো

আহমেদ রাজু / ৭২ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৫৬ পূর্বাহ্ন

দৌলতপুরের দুর্গম চরের পৌছে গেল বিদ্যুতের আলো

আহমেদ রাজু, দৌলতপুর
প্রায় দেড়শ বছরের পুরোনো কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ও চিলমারী এই দুটি ইউনিয়নের দুর্গম চর। সেখানকার কয়েকটি গ্রামে বসবাস করেন প্রায় ৫০ হাজারের বেশি মানুষ। ভারত সীমান্ত ঘেঁষা গ্রামগুলো পদ্মা নদীর কারণে মুল ভু-খন্ড থেকে প্রায় বিচ্ছিন্নই বলা চলে। বর্ষা কালে নদীর পানি বৃদ্ধি পেলে নৌকা যোগে যাতাযাত সুবিধা হলেও শুকনো মৌসুমে যত বিড়াম্বনা। গ্রীস্ম মৌসূমে চারিদিকে ধু-ধু বালুচর। এ সময় চরাঞ্চলের মানুষের যাতায়াতের জন্য একমাত্র বাহন হলো ভাড়াই চালিত মোটরসাইকেল। নাগরিক সুবিধা বলতে তেমন কিছু নেই। দিনে জনসমাগম থাকলেও সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে গ্রামগুলো পরিনত হয় ভুতুড়ে জনপদে। চারিদিক যেন অন্ধকার চাদরে ঢাকা। আলোর ব্যবস্থা না থাকায় স্থানীয় বাজারগুলোও প্রায় জনশুন্য হয়ে যায়। চারিদিকে শুনশান নিরবতা। দিনে সূর্যের আলো থাকলেও রাতের অন্ধকার দুর করতে বিদ্যুতের আলো তাদের কাছে স্বপ্নের মত। মানুষের দীর্ঘ দিনের বিদ্যুতের সে স্বপ্ন এবার বাস্তবে রুপ নিল। স্থানীয় সাংসদের নিরলস প্রচেষ্টায় দুর্গম চরের ওই গ্রামগুলোর ঘরে ঘরে পৌছে গেল বিদ্যুতের আলো। ভুতুড়ে জনপদের মানুষের স্বপ্ন পুরণ হওয়ায় তাদের চোখেমুখে আনন্দের হাসি।

রোববার বেলা ১১ টায় প্রধান অতিথি হিসেবে রামকৃষ্ণপুর ও চিলামারী ইউনিয়ন দু’টির বিদ্যুৎ সংযোগের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন দৌলতপুর আসনের সাংসদ অ্যাড. আ. কা. ম সরওয়ার জাহান বাদশাহ। রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডলের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশেষ অতিথি ছিলেন দৌলতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন, কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার সোহরাব উদ্দিন, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী মহিউদ্দিন, কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সভাপতি রেজওয়ান আলী খান। বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের সদস্য নাসির উদ্দিন মাষ্টার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সরদার তৌহিদুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম শেলী দেওয়ান, সাবেক তথ্য বিষয়ক সম্পাদক টিপু নেওয়াজ, সাবেক শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সাদিকুজ্জামান খান প্রমুখ। এদিন ২২১টি সংযোগের মধ্যে দিয়ে চরের বিদ্যুত সংযোগের যাত্রা শুরু হবে।

চরাঞ্চলের কয়েকটি গ্রাম ঘুরে দেখা যায়, মানুষের চলাচলের জন্য চরগুলোর অনেক স্থানে তৈরী করা হয়েছে উচু রাস্তা। রাস্তার পাশ দিয়ে মাইলের পর মাইল স্থাপন করা হয়েছে বিদ্যুতের নতুন খুটি। বিদ্যুতের সংযোগের জন্য বাড়িগুলোতে ওয়ারিংসহ যাবতীয় কাজ ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। বিদ্যুত সরবারহকে কেন্দ্র করে গ্রামের সাধারন মানুষগুলোর মনে যেন আনন্দের সীমা নেই।

ইনছাফনগর গ্রামের বাসিন্দা রেজাউল মন্ডল জানান, চরে বিদ্যুতের আলো আসবে তা কখনও চিন্তাও করেননি তারা। বিদ্যুত আসার ব্যাপক এলাকা বিদ্যুতের মাধ্যমে সেচের আওতায় আসবে। একদিকে উৎপাদন খরচ কমবে অন্যদিকে ফলন বাড়বে।

রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডল বলেন, চরের মানুষের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন আজ বাস্তবে রুপ নিতে চলেছে। এসব এলাকায় ছোট ছোট কল কারখানা গড়ে উঠবে। বিদ্যুত সংযোগ পাওয়ায় চরের মানুষের জীবনযাত্রায় আমুল পরিবর্তন আসবে।

বিদ্যুত সংযোগসহ চরাঞ্চলের মানুষের সামগ্রীক উন্নয়নের কাজ তদারকি করছেন সাংসদের ছেলে শাইখ আল জাহান শুভ্র জানান, দৌলতপুরের সামগ্রীক উন্নয়নের সাথে সাথে চরাঞ্চলের মানুষের বিদ্যুত, রাস্তাঘাট, চিকিৎসাসহ তাদের জীবন মানের উন্নয়নে বর্তমান সাংসদ কাজ করে যাচ্ছে। এ জন্য বিশেষ পরিকল্পনা করে তা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

দৌলতপুর পল্লীবিদ্যুৎ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) কে এম তুহিন জানান, দুর্গম এলাকা হওয়ায় সেখানে বিদ্যুতের লাইন স্থাপন ও মামলামাল পরিবরন খুবই চ্যালেঞ্জিং ছিল। পদ্মা নদীর মাঝ দিয়ে সাবমেরিন কেবলের মাধ্যমে লাইন নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এছাড়া চিলমারী এলাকায় একটি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে। এ প্রকল্পে ব্যয় হচ্ছে প্রায় ৪২কোটি টাকা। প্রখম পর্যায়ে চিলমারী ও রামকৃষ্ণপুর দুই ইউনিয়নের প্রায় সাড়ে ৮ হাজার পরিবার বিদ্যুতের আওতায় আসবে।

দৌলতপুর আসনের সাংসদ অ্যাড. আ. কা. ম সরওয়ার জাহান বাদশাহ বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনা অনুযায়ী ২০২১ সালের মধ্যে প্রতিটি বাড়িতে বিদ্যুৎ দেয়ার ঘোষনা বাস্তবাবায়নে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। প্রতিকুলতা সত্ত্বেও নির্বাচনী প্রতিশ্রুত অনুযায়ী মাত্র দুই বছরের মাথায় চরে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে পেরেছি। এছাড়াও চরাঞ্চলের মানুষের যাতাযাতের জন্য রাস্তা নির্মান ও পদ্মা নদীর ভাগজোত পয়েন্টে একটি ব্রিজ নির্মানের প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। এগুলো বাস্তবায়ন হলে চরাঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রায় ব্যাপক পরিবর্তন আসবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

Archives

MonTueWedThuFriSatSun
   1234
19202122232425
2627282930  
       
       
       
  12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  
       
এক ক্লিকে বিভাগের খবর